অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সাইট ২০২২

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সাইটঃবর্তমানে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার অসংখ্য উপায় সৃষ্টি হয়েছে। এক সময়ে অনলাইনে টাকা আয় করা অনেকটা স্বপ্নের মধ্যে থাকলেও এখন সেটা বাস্তবে রূপান্তরিত হয়েছে।

সাম্প্রতিক সময়ে অনেকে অনলাইন থেকে খুব সহজেই হাজার হাজার টাকা আয় করে নিচ্ছে। অনলাইনে টাকা ইনকাম করার বেশ কিছু সাইট রয়েছে যে সাইট গুলোতে কাজ করার মাধ্যমে ভালো টাকা আয় করা যাচ্ছে।

সঠিকভাবে যদি এই ওয়েবসাইটগুলোতে কাজ করা যায় এখান থেকে ভালো অর্থ উপার্জন করা সম্ভব হচ্ছে।

যারা পার্টটাইমে আয় করতে চান তারা চাইলে পার্টটাইম অনলাইনে ইনকামের জন্য এই কাজগুলো করতে পারেন। এই সকল সাইট গুলোর মধ্যে কিছু জনপ্রিয় ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি মাসে লাখ টাকাও আয় করতে পারবেন অনায়াসে।

আজকের এই পোস্টে সাধারণত এইরকম কিছু জনপ্রিয় ওয়েবসাইট সম্পর্কে আপনাদের সাথে আলোচনা করবো (Online Income Site Bangla)। যাতে আপনারা অনলাইন থেকে পার্ট টাইমে খুব ভালো অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

অনলাইন ইনকাম সাইট
অনলাইন ইনকাম সাইট

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার ১০ টি সাইট (Online Earn Webist List)

১.ইউটিউব ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আয়

বর্তমানে ইউটিউব হচ্ছে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট। যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকেন তারা নির্দিষ্ট একটি সময়ে ইউটিউবে কাটিয়ে থাকেন।

ইউটিউব কোম্পানি তাদের ইউজারদের জন্য দারুন কিছু সুবিধা চালু করেছে। এখন অনেকে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার মাধ্যমে তার ইউটিউব চ্যানেলটি মনিটাইজ করে সেখান থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

তাছাড়া ইউটিউব চ্যানেলটি যদি একবার বড় হয়ে যায় সেখান থেকে আরো অসংখ্য উপায় অবলম্বন করে ভালো অর্থ আয় করে নিতে পারবেন।ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার জনপ্রিয় কয়েকটি উপায়।যেমন:

➡️গুগল এডসেন্স

➡️অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

➡️নিজের প্রোডাক্ট বিক্রি করে

➡️স্পনসর কনটেন্ট

আরো অসংখ্য উপায় রয়েছে যে উপায় গুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে খুব সহজেই ইউটিউব থেকে আয় করতে পারবেন। অনলাইনে ইনকাম করার সাইট গুলোর মধ্যে এই সাইটটি খুবই জনপ্রিয়।

অবশ্যই দেখবেন:

২. Blogger.com এর মাধ্যমে

আপনারা চাইলে অনলাইনে নিজের একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার মাধ্যমে সেখান থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। প্রথম পর্যায়ে আপনি চাইলে Blogger.com এ একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানে নিয়মিত আর্টিকেল পাবলিশ করার মাধ্যমে আপনার ব্লগ সাইটটি কে জনপ্রিয় করে তুলতে পারেন।

পরবর্তীতে যখন আপনার ব্লগ সাইটে প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর আসবে তখন আপনি গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে, এফিলিয়েট মার্কেটিং করে, বিভিন্ন কোর্স বিক্রি করে আরো অসংখ্য উপায়ের মাধ্যমে চাইলে এখান থেকে আয় করতে পারেন।

আপনারা blogger.com খুব সহজেই ফ্রিতে একটি ব্লগ সাইট তৈরি করে ফেলতে পারবেন এবং সেখানে নিয়মিত কাজ করার মাধ্যমে পরবর্তীতে অর্থ আয় করতে পারবেন।অনলাইন থেকে আয় করার জন্য এই ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করতে পারেন।

৩. ফেসবুকের মাধ্যমে আয়

ফেসবুক হচ্ছে বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। ফেসবুককে ব্যবহার করে আমরা বিভিন্ন ধরনের কাজ করে থাকে।ফেসবুক থেকে অনেকে অর্থ উপার্জন করছে খুব সহজেই।

বর্তমানে ফেসবুক থেকে সরাসরি অর্থ উপার্জনের সুযোগ করে দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর মাধ্যমে, ফেসবুকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে, ফেসবুক পেজ মনিটাইজ করে এড দেখানোর মাধ্যমে আরো অসংখ্য উপায় রয়েছে যে উপায় গুলো ব্যবহার করে আপনারা ফেসবুক থেকে আয় করতে পারবেন।

তবে ফেসবুক থেকে আয় করার জন্য অবশ্যই ধৈর্যের সাথে কাজ করে যেতে হবে। ফেসবুকে এমন কোন পন্থা নেই যে পন্থার মাধ্যমে আপনি রাতারাতি সেখান থেকে হাজার ডলার আয় করতে পারবেন।

৪. ফাইবার ওয়েবসাইট থেকে আয়

যারা আউটসোর্সিং করে থাকেন তাদের জন্য খুবই পছন্দের একটি ওয়েবসাইট ফাইবার। অর্থাৎ এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং করে আয় করা সম্ভব।

বর্তমানে আমাদের দেশে অসংখ্য ফ্রিল্যান্সার রয়েছে যারা এই ফাইবারে কাজ করার মাধ্যমে প্রতি মাসে লক্ষ টাকা আয় করছে।

তবে অবশ্যই আপনাকে ফাইবার থেকে টাকা আয় করার জন্য অবশ্যই আউটসোর্সিংয়ের কিছু কাজ শিখে নিতে হবে।অর্থাৎ গ্রাফিক্স ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট,আরো অসংখ্য কাজ রয়েছে যে কাজগুলো সম্পর্কে আপনার সঠিক দক্ষতা থাকতে হবে।

নিদৃষ্ট কোন কাজ সম্পর্কে যদি আপনার সঠিক দক্ষতা থেকে থাকে তাহলে আপনি ফাইবারে অনেক কাজ পেয়ে যাবেন এবং সেখান থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

৫. গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে আয়

গুগল এডসেন্স হচ্ছে একটি বিজ্ঞাপন কোম্পানি। গুগলের দ্বারা সাধারণত এই কোম্পানিটির নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে।এই ওয়েবসাইট থেকে সরাসরি আপনি কোনোভাবেই আয় করতে পারবেন না।

এর জন্য আপনার ওয়েবসাইট বা ইউটিউব চ্যানেল থাকা লাগবে যেগুলোতে আপনি গুগল এডসেন্সের এড দেখানোর মাধ্যমে সেখান থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

বর্তমানে এমন অসংখ্য লোক রয়েছে যারা শুধুমাত্র গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে প্রতিমাসে লক্ষ টাকা অনায়াসেই ইনকাম করে নিচ্ছে।

তাই গুগল এডসেন্স থেকে আয় করার জন্য অবশ্যই একটি ওয়েবসাইট চালু করতে পারেন অথবা ইউটিউব চ্যানেল কেও আপনি ব্যবহার করতে পারেন।অনলাইন থেকে ইনকাম করার জন্য গুগল এডসেন্স হচ্ছে কার্যকারী একটি সাইট।

৬. মেগা টাইপারস থেকে আয়

অনলাইন থেকে ইনকাম করার জন্য mega typers হচ্ছে দারুন একটি ওয়েবসাইট। যারা অনলাইন থেকে ডাটা এন্ট্রি করে টাকা ইনকাম করতে চান তারা চাইলে এই ওয়েবসাইটটিতে কাজ করে টাকা আয় করতে পারেন।

এই ওয়েবসাইটটি খুবই বিশ্বস্ত একটি ওয়েবসাইট এবং দীর্ঘদিন ধরে তাদের গ্রাহকদের সেবা দিয়ে আসছে।

আপনারা এই ওয়েবসাইটটিতে ক্যাপচা পূরণ করে বিভিন্ন ধরনের ইমেজ অপটিমাইজেশন করে আরো অনেক ধরনের কাজ রয়েছে যেগুলো করার মাধ্যমে এখান থেকে আয় করতে পারবেন।

এই ওয়েবসাইট থেকে কাজের অর্থ আপনারা ব্যাঙ্ক transfer,Web money, এবং পেপালের মাধ্যমে এই ওয়েবসাইট থেকে আপনারা খুব সহজেই পেমেন্ট নিতে পারবেন।

আরও দেখতে পারেন: 

৭. Shorte st থেকে আয়

সাধারণত এখান থেকে আপনারা লিংক শর্ট করে আয় করতে পারবেন।লিংক শর্ট করে আয় করার যত ওয়েবসাইট রয়েছে তার মধ্যে এই ওয়েবসাইটটি উল্লেখযোগ্য। এর জন্য আপনার ওয়েব সাইট অথবা ফেসবুক পেজ থাকা লাগবে। তাছাড়া আপনার যদি অসংখ্য ফলোয়ারের টুইটার একাউন্ট এবং লিনক অনলাইন অ্যাকাউন্ট থেকে থাকে তাহলে এর মাধ্যমে আপনি লিঙ্ক শর্ট করে আয় করতে পারবেন।

প্রথমে আপনাদেরকে এই ওয়েবসাইটটিতে রেজিস্টার করতে হবে এবং আপনি যে বিষয়ের ওপর লিংক শর্ট করতে চান তার লিংক সেখানে নিয়ে গিয়ে অপটিমাইজ করতে হবে।

Shorte st আপনাকে একটি ছোট লিংক প্রদান করবে এবং এই লিংকটি আপনাকে ফেসবুক পেজ টুইটার একাউন্ট অথবা আপনার লিঙ্কডইন প্রোফাইলে শেয়ার করে দিতে হবে।তারপরে এই লিংকে যতজন ক্লিক করবে তার জন্য কিছু অর্থ আপনি পাবেন।এভাবে আপনারা চাইলে এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে লিংক শর্ট করে আয় করতে পারেন।

৮. বিল্যান্সার ডট কম

আপওয়ার্ক,ফাইবার এসব গুলোর মত বিল্যান্সার হচ্ছে বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সারদের জন্য মার্কেটপ্লেস।যাদের ইংরেজি ভাষায় সঠিক দক্ষতা না থাকার কারণে ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেসগুলোতে কাজ করতে পারে না তারা বিল্যান্সার মার্কেটপ্লেসগুলোতে কাজ করে থাকেন।

আপনারা এই ওয়েবসাইটে ফেসবুক পেজ তৈরি ডাটা এন্ট্রি, ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট এবং কনটেন্ট রাইটিং এর মত অসংখ্য কাজ পেয়ে যাবেন।

সাইটটি যেহেতু বাংলাদেশী তাই কোন ধরনের সমস্যা হলে সরাসরি তাদের সাথে কথা বলে তার সমাধান করতে পারবেন। ফ্রিল্যান্সিং কাজ গুলোর বিষয়ে যদি আপনার সঠিক দক্ষতা থাকে তাহলে অনায়াসেই এখান থেকে ভাল কাজ পেয়ে যাবেন।

আর এই সাইটে কাজ করা অর্থ আপনারা বিকাশ ক্রেডিট কার্ড এবং পেপালের মাধ্যমে খুব সহজেই উইথড্রো করতে পারবেন।তাই যদি অনলাইনে ইনকামের সাইট খুঁজে থাকেন তাহলে এই সাইটটিতে কাজ করতে পারেন।

৯. আপওয়ার্ক থেকে আয়

ফ্রিল্যান্সারদের জন্য পছন্দের একটি ওয়েবসাইট হচ্ছে আপওয়ার্ক। একজন ফ্রীল্যান্সার যদি সঠিক দক্ষতা সম্পন্ন হয়ে থাকেন তাহলে প্রচুর কাজ পেয়ে যাবেন আপওয়ার্ক ওয়েবসাইটের মাধ্যমে।

আপওয়ার্ক ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস এর এই ওয়েবসাইটটিতে আপনারা ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, কনটেন্ট রাইটিং, লোগো ডিজাইন,ডিজিটাল মার্কেটিং, ভিডিও এডিটিং আরও অসংখ্য কাজ পেয়ে যাবেন।

আপনাকে শুধুমাত্র নিজের দক্ষতা অনুযায়ী অর্থাৎ যে কাজ সম্পর্কে আপনি সঠিক ধারণা রাখেন সেই কাজগুলো খুঁজতে হবে। একবার যদি আপনি এখানে নিজের স্কিল এর সঠিক প্রমাণ দিতে পারেন তাহলে অসংখ্য কাজ পেয়ে যাবেন এই ওয়েবসাইটটিতে।

আপনারা এই ওয়েবসাইট থেকে উপার্জনকৃত অর্থ পেপাল, ব্যাংক ট্রান্সফার, ক্রেডিট কার্ড আরো অনেক পেমেন্ট মেথড ব্যবহার করে খুব সহজেই উইথড্র করতে পারবেন।অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সাইটের মধ্যে এটি খুবই জনপ্রিয়।

১০. Swagbucks.Com

অনলাইন থেকে ইনকাম করার যত জনপ্রিয় ওয়েবসাইট রয়েছে এই ওয়েবসাইটটি কে তাদের মধ্যে রাখতেই হবে। আপনারা এই ওয়েবসাইটটিতে পার্টটাইম কাজ করে খুব সহজেই ভালো পরিমাণে অর্থ আয় করে নিতে পারবেন।

এই ওয়েবসাইটটিতে ইমেইল এড্রেস এর মাধ্যমে সহজেই লগইন করা যাবে এবং বিভিন্ন ধরনের পেইড সার্ভে পূরণ করে এখান থেকে আয় করা যাবে।

সাধারণত এখানে বিভিন্ন কোম্পানি, প্রোডাক্ট এবং নানা ধরনের ব্র্যান্ডের বিষয়ে আপনাকে মতামত দিতে বলা হবে।আর আপনি এই ধরনের সার্ভে গুলোতে নিজের মতামত দেয়ার মাধ্যমে এখান থেকে খুব সহজেই আয় করতে পারবেন।

অনেকে এই সাইটে পার্টটাইম কাজ করার মাধ্যমে মাস শেষে ভালো অর্থ উপার্জন করে নিচ্ছে।তাই সঠিকভাবে যদি এই সাইটে কাজ করতে পারেন তাহলে অবশ্যই পকেটমানি বের করা সম্ভব এর মাধ্যমে।

আমাদের শেষ কথা,

সঠিক দক্ষতা আর নিজের ভেতরের চেষ্টা থাকলে যেকেউ চাইলেন অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। উপরে উল্লেখিত ওয়েবসাইটগুলো থেকে অনেকে লাখ লাখ টাকা আয় করছে। বর্তমানে এই ওয়েবসাইটগুলো হচ্ছে অনলাইন টাকা ইনকাম করার সাইট গুলোর মধ্যে খুবই জনপ্রিয়।তাই সঠিকভাবে যদি এখানে কাজ করতে পারেন তাহলে অনায়াসে এই ওয়েবসাইটে আয় করা সম্ভব।

অনলাইন ইনকাম সম্পর্কিত বিভিন্ন ধরনের বিষয় সম্পর্কে নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ভিজিট করুন এবং কোন ধরনের প্রশ্ন থেকে থাকলে এই বিষয়ে আমাদেরকে সরাসরি কমেন্ট করার মাধ্যমে জানাতে পারেন।

4 thoughts on “অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সাইট ২০২২”

    1. আমাদের ওয়েবসাইটে অনলাইনে ইনকাম সম্পর্কে অনেকগুলো পোস্টটি রয়েছে। ওই পোস্টগুলো ভালভাবে পড়ুন।

    2. আমি অনলাইনে কাজ করতে চাই, কিন্তু আনলাইনের কাজ সম্পর্কে তেমন বেশি ধারনা নেই

      1. Shahjalal, আমাদের ওয়েবসাইটে অনেকগুলি অনলাইন ইনকাম সর্ম্পকিত পোস্ট আছে। ভালো করে সেগুলো পড়ুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap