অনলাইনে ক্যাপচা এন্ট্রি করে আয় করুন

ক্যাপচা এন্ট্রি করে আয় করুন: আমরা যারা অনলাইন ইনকাম করি বা করতে চায় তারা সকলেই হয়ত ক্যাপচা পূরন করে অনলাইনে আয় নিয়ে কমবেশি জানি। ঘরে বসে সহজেই ক্যাপচা পূরণ করে অনলাইনে কিছু টাকা আয় করা যায় এবং যেটির জন্য কোন দক্ষতা দরকার হয় না শুধু টাইপিং করতে পারলেই হয় তাই ক্যাপচা টাইপিং করে আয় করাটা সকলের কাজে খুব জনপ্রিয়। কিন্তু captcha typing করে অনেক বেশি আয় করা সম্ভব নয়। 

ক্যাপচা এন্ট্রি করে আয়
ক্যাপচা এন্ট্রি করে আয়

ক্যাপচা এন্ট্রি করে আয়

Captcha Typing করে আয় করতে শুধু আপনার একটি স্মার্টফোন কিংবা কম্পিউটার থাকলেই যথেষ্ট। অনেকেই যারা মোবাইল ফোন দিয়ে আয় করতে চায় তাদের জন্য এটি একটি ইনকামের ভালো মাধ্যম হতে পারে৷

অনেকের মতে প্রতিদিন ২-৩ ঘন্টা সময় দিয়ে মাস শেষে ৫০০০-৬০০০ টাকা আয় করতে পারবেন ক্যাপচা টাইপ করে। কিন্তু আমি কোনো দিন ক্যাপচা টাইপ করে ৫-৬ হাজার টাকা ইনকাম করতে কাউকে দেখি নি। তাই কথাটির সত্যতা কতটুকু তা বলতে পারছিনা৷

কিন্তু অনেকেই বলে ভালো টাইপিং স্পিড থাকলে ক্যাপচা টাইপিং করে ভালো আয় করা যায় কথাটি অনেকাংশেই মিথ্যা কারন ক্যাপচা এন্ট্রি ওয়েবসাইট গুলতে অনেক লোডিং এর পর একটি ক্যাপচা আসে তারপর আবার লোডিং হয় আবার আসে এভাবে ক্যাপচা লোড হতে অনেক সময় নেয় যার কারনে আপনার টাইপিং স্পিড বেশি হলেও তাতে আপনার কাজের স্পিডের মধ্যে তেমন কোন প্রভাব ফেলে না।

অবশ্যই দেখবেন: 

ক্যাপচা কি (what is captcha)? 

ক্যাপচা টাইপ করে ইনকাম করার আগে আমাদের জানতে হবে ক্যাপচা জিনিসটা কি?

আমরা ইন্টারনেটে আমাদের প্রয়োজনের তাগিদে অনেক ওয়েবসাইটে একাউন্ট খুলি বা অনেক একাউন্টে লগ ইন করি।  এসব একাউন্ট খোলার আগে বা লগ ইন করার সময় আমাদের সামনে “I am not a robot” লিখা একটা বক্স আসে যেটাতে ক্লিক করার পর আমাদের কিছু ছবি সিলেক্ট করতে বলে তারপরে অনেক সময় অনেক জায়গায় কিছু আঁকা বাকা অক্ষর থাকে যেগুলো টাইপ করতে বলা হয়। এই যে ছবি  বা আঁকাবাঁকা লেখা গুলোকে ক্যাপচা বলে।

ক্যাপচাকে এক ধরনের প্রোবলেমও বলা যেতে পারে যে প্রোবলেমের সোলিউশন শুধু মানুষই করতে পারে। এখন হয়ত আপনার মনে প্রশ্ন আসছে কেন এ ধরনের ক্যাপচা  ব্যবহার করা হয়। অনেক সময় মানুষ এমন অনেক সফটওয়্যার তৈরি করে যেগুলো কোন একটি ওয়েবসাইটে গিয়ে সব ইনফরমেশন বসিয়ে একসাথে অনেগুলো একাউন্ট(bulk account) খুলতে পারে। যার ফলে অনেক ধরনের স্প্যামি হয়। তাই কোন রোবট কিংবা সফটওয়্যার যেনো এমটা করতে না পারে তাই এই ক্যাপচার আবিষ্কার।

এটি মূলত একটি ভেরিফাই প্রোসেস যেটির মাধ্যমে bulk account ক্রিয়েট করা থেকে কোন একটি ওয়েবসাইট বাঁচতে পারে।

আসা করি ক্যাপচা(Captcha) কি তা বুঝতে পেরেছেন। 

ক্যাপচা এন্ট্রি কাজ কি? ক্যাপচা লেখার নিয়ম

ক্যাপচা এন্ট্রির কাজগুলো খুব সহজ। পৃথিবীতে এমন অনেক ওয়েবসাইট আছে যেখানে এমন ক্যাপচা সলভিং কাজ পাবেন।এসব ওয়েবসাইটে আপনাকে অনেক ধরণের ক্যাপচা দিবে তারপর সেগুলো আপনাকে সলভ করতে হবে। এটিই হলো মূলত ক্যাপচা এন্ট্রির কাজ। 

ক্যাপচা এন্ট্রি কাজ করার জন্য আপনাকে প্রথমে যেসব ওয়েবসাইটে ক্যাপচা এন্ট্রি কাজ পাওয়া যায় ঐসব ওয়েবসাইটে একাউন্ট খুলতে হবে। একাউন্ট খুলতে আপনার বেসিক কিছু ইনফেকশন লাগবে যেমনঃ- নাম, ইমেইল আইডি, পাসওয়ার্ড ইত্যাদি। 

এভাবে আপনার যাবতীয় তথ্য দিয়ে একাউন্ট খুলতে পারবেন। প্রায় সব ক্যাপচা এন্ট্রি ওয়েবসাইটে একাউন্ট করা নিয়ম একই।

একাউন্ট তৈরির পর করণীয়ঃ

  • একটি ডিভাইস/আইপি থেকে শুধুমাত্র একটি একটি একাউন্টই খুলবেন। যদি অধিক একাউন্ট খুলেন তাহলে ব্লক করে দেওয়ার সম্ভাবনা থাকে ।
  • একাউন্ট খোলার পরে আপনার জিমেইল, পেমেন্ট মেথড ইত্যাদির মাধ্যমে আপনার একাউন্টকে ভেরিফাই করে নিবেন।
  • তারপরে ক্যাপচা এন্ট্রির কাজ শুরু করতে পারেন।
  • ক্যাপচা এন্ট্রির সময় আপনি ছবিতে যেমন দেখবেন ঠিক সেইরকমই টাইপ করবেন কোন ভুল করবেন। 
  • প্রত্যেক ক্যাপচার জন্য নির্দিষ্ট সময় দেওয়া হয় সেই সময়েে মধ্যে শেষ করতে হবে। 
  • যদি কোন ক্যাপচা ভুল হয় বা ক্যাপচা টাইপ করার সময় শেষ হয়ে যায় তাহলে তাহলে অনেক সময় একাউন্ট ব্লগ হয়ে যেতে পারে।
  • প্রায়ই সকল ওয়েবসাইট প্রতি ১০০০ ক্যাপচার জন্য ১-২ ডলার দিয়ে করে থাকে। 
  • আপনার টাকা paypal, webmoney, bitcoin ইত্যাদি পেমেন্ট মেথডে নিতে পারবেন। 

সাধারণত এই প্রোসেস গুলো ফলে করেই আপনি ক্যাপচা এন্ট্রির কাজ শুরু করতে পারেন।

কিন্তু ক্যাপচা এন্ট্রি কাজ শুরু করার জন্য আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ জিনিস দরকার সেটি হলো ক্যাপচা এন্ট্রি ওয়েবসাইট।

বর্তমানে অনলাইনে অনেক ক্যাপচা এন্ট্রি ওয়েবসাইট রয়েছে কিন্তু তার মধ্যে বেশিরভাগই ফেইক। কিন্তু আমি আপনাদের আজকে কিছু সেরা ক্যাপচা এন্ট্রি ওয়েবসাইট শেয়ার করব।

আর দেখুন: 

সেরা ক্যাপচা টাইপিং ওয়েবসাইট 

Kolotibablo

বিশ্বের সবচেয়ে সেরা এবং বিখ্যাত ক্যাপচা এন্ট্রি ওয়েবসাইট হলো kolitibablo। এই ওয়েবসাইটে কাজ করা সেরা ১০০ জন সম্পর্কে সার্চ করলেই আপনি জানতে পারবেন তারা $100-$200 ইনকাম করেছে ক্যাপচা এন্ট্রি করে। 

এই ওয়েবসাইটি প্রতি ১০০০টি সঠিক  ক্যাপচার জন্য আপনাকে  $0.35- 1 দেয়। কিন্তু এই ওয়েবসাইটের একটি কঠিন নিয়ম হচ্ছে এখানে যদি আপনি বেশি ক্যাপচা ভুল করেন তাহলে আপনার একাউন্ট সাসপেন্ড হয়ে যাওয়র ভয় থাকে।

এই ওয়েবসাইট থেকে আয়কৃত টাকা webmoney বা payza মাধ্যমে তুলতে পারবেন৷ যদি webmoney বা payza একাউন্ট না থাকে তাহলে সহজেই খুলে নিতে পারবেন। একাউন্ট খোলার সাথে সাথে কাজ করা শুরু করে দিতে পারবেন এখানে। 

MegaTypers

বর্তমানে আরেকটি জনপ্রিয় ক্যাপচা টাইপিং সাইট হলো Megatypers। এটিতে ফ্রী একাউন্ট খুলে আপনি কাজ আরম্ভ করতে পারবেন। 

এই ওয়েবসাইটের সেরা টাইপাররা প্রতি মাসে ঘরে বসে $100-250 আয় করছে। 

শুরুতে এই ওয়েবসাইটি প্রতি ১০০০ ক্যাপচা পূরণ করার জন্য $0.45 দিয়ে থাকে। কিন্তু যদি আপনি অনেক ক্যাপচা সঠিক ভাবে পূরণ করতে পারেন তাহলে এই প্রতি ১০০০ ক্যাপচার জন্য এই ওয়েবসাইট $1.5 পর্যন্ত পেয়ে থাকে।

আয়কৃত টাকা উত্তলন করার মাধ্যম হলো Debit card, bank, paypal, webmoney, perfect money, payza, Western Union। আপনি যদি ক্যাপচা টাইপিং কাজগুলোতে একদম নতুন হয়ে থাকেন তাহলে এই ওয়েবসাইট দিয়ে শুরু করতে পারবেন।

2captcha

2captcha এই ওয়েবসাইটে আপনি প্রতি ১০০০ টি সঠিক ক্যাপচা পূরণের জন্য $1 পাবেন। শুধু তাই নয় এখানে কিছু জটিল ক্যাপচা পূরণের জন্য আপনাকে বোনাসও দিবে।

আপনি আপনার বন্ধুবান্ধবকে রেফার করার মাধ্যমেও এক্সট্রা টাকা আয় করতে পারবেন। একাউন্ট খোলার সাথে সাথেই কোন ঝামেলা ছাড়া কাজ শুরু করতে পারবেন। তাদের নিজস্ব মোবাইল এপও রয়েছে সেই এপ ব্যবহার করে মোবাইল দিয়েও আয় করতে পারবেন।

এই ওয়েবসাইটের পেমেন্ট মেথড গুলো হলো  Paypal, Payza, webmoney। উইথড্রোর জন্য paypal এর ক্ষেত্রে কমপক্ষে $5, Payza’র ক্ষেত্রে $1 এবং webmoney’র ক্ষেত্রে $0.5 থাকতে হবে। 

Captcha2cash 

অনেকে Captcha2cash এই ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করে ঘরে বসে পার্ট টাইম টাকা আয় করছে। এই ওয়েবসাইটে কাজ করা জন্য আপনার ল্যাপটপ বা ডেস্কটপে Captcha2cash এর একটি সফটওয়্যার ইনস্টল করতে হবে।

তারপরে সেই সফটওয়্যারের মাধ্যমে ক্যাপচা পূরণের কাজ করে আয় করতে পারবেন। প্রতি ১০০০ টি সঠিক ক্যাপচার বিনিময়ে $1 দেয় এই ওয়েবসাইটটি। এটির পেমেন্ট মেথড হলো Payza, Perfect money।

ProTypers

এই ওয়েবসাইটটি mega typers এর মতোই। এখানে প্রত্যেক ১০০০ টি সঠিক ক্যাপচার বিনিময়ে $0.45-1 পাবেন। আপনার আয়কৃত টাকা Paypal, Payza মাধ্যমে সহজেই উইথড্র করতে পারবেন। 

Virtual Bee 

এই ওয়েবসাইটে ক্যাপচা এন্ট্রি ছাড়াও আরো অনেক ভাবে কাজ করা যায়। এটি অনেক পুরানো ওয়েবসাইট প্রায় ২০০১ থেকে এটি মার্কেটে আছে এবং ট্রাস্টেড একটি ওয়েবসাইট।

এখানে প্রথমে আপনাকে একটি পরীক্ষা দিতে হবে ১০০ নম্বরের। পরীক্ষার পর আপনার ফলাফল এবং নম্বরের উপর ভিত্তি করে আপনাকে কাজ দেওয়া হবে।

Fast typers 

এটি একটি ক্যাপচা এন্ট্রি সাইট যেখানে প্রতি ১০০০ ক্যাপচার বিনিময়ে 1.5 ডলার আয় করতে পারবেন।

এই ওয়েবসাইটে রাত ১২ টা থেকে ভোর ৫ টার মধ্যে কাজ করলে অধিক ইনকাম সম্ভব।

QlinkGroup 

এই সাইটে কাজ করার জন্য আপনার একটি ল্যাপটপ বা কম্পিউটার থাকতে হবে। তারপর আপনার কম্পিউটারে QlinkGroup এর software ডাউনলোড করতে হবে।

এটি সম্পূর্ণ ফ্রী কোন প্রকার টাকা খরচ হবে না। তাদের software ডাউনলোড করে আপনি খুব সহজে কাজ করতে পারবেন।

CaptchaTypers

Captcha typers ওয়েবসাইটটিতে অনেকে কাজ করে। এটিতেও একই ভাবে software ডাউনলোড করে কাজ করতে হবে।

কিন্তু তার আগে প্রথমে আপনাকে এই ওয়েবসাইটে একাউন্ট খুলতে হবে। একাউন্ট খোলার নিয়ম বাকী ওয়েবসাইটের মতোই সহজ৷ তারপরে software ডাউনলোড করেই কাজ শুরু করতে পারেন। 

উপরের ওয়েবসাইট গুলোই ক্যাপচা এন্ট্রি কাজের জন্য সব থেকে বেস্ট ওয়েবসাইট আপনি যদি ক্যাপচা এন্ট্রি কাজ শুরু করতে চান তাহলে এনব ওয়েবসাইট দিয়ে শুরু করতে পারেন।

কিছু কথা

ক্যাপচা লিখে আয় করা কি উচিত নাকি উচিত না এমন প্রশ্ন যদি আমাকে করা হয় তাহলে আমি বলব উচিত না! কারন যখন আমি নতুন ছিলাম তখন করেছি এসব কাজ অনেক সময় নষ্ট করেছি কিন্তু সেই সময়ে যদি নিজের স্কিলকে ডেভেলপ করতে পারতাম তাহলে হয়ত আজকে আরো ভালো কিছু করতে পারতাম।

যে যাই বলুক ক্যাপচা টাইপ করে আপনি সারাজীবন কাজ করতে পারবেন না কারণ এখানে যে টাকা আয় করবেন তা আপনার পরিশ্রম সাপেক্ষে অনেক কম।

কিন্তু যদি আপনি স্টুডেন্ট হন কিংবা আপনার টাকার অনেক বেশি দরকার হয় তাহলে করতে পারেন এই কাজ। আপনার হাতে থাকা মোবাইল দিয়েও খুব সহজে এসব কাজ করতে পারবেন।

অনেকেই বলে ভিপিএন দিয়ে কাজ করতে কয়েকটি একাউন্ট খুলে কাজ করতে কিন্তু কখনোই এমনটা করবেন না কারন হলো আপনি আজকে চুরি করে ২ টাকা বেশি আয় করেছেন কিন্তু কালকে? কালকে তো তারা আপনার একাউন্টই সাসপেন্ড করে দিবে তখন তো আর আয় করার রাস্তা থাকবে না।

তাই সব সময় সততার সাথে চলবেন ধৈর্য ধরবেন, সফলতা আপনার খব কাজেই আছে।

শেষ কথা

আমাদের আজকের এই পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্য ধন্যবাদ। আমরা এই ওয়েবসাইটে অনলাইন ইনকাম নিয়ে নানা টিপস শেয়ার করে থাকি। যদি আপনিও চান ঘরে বসে অনলাইনে টাকা আয় করতে তাহলে আমাদের ওয়েবসাইট ঘুরে দেখুন৷

আর আপনি কোন ওয়েবসাইটে কাজ শুরু করবেন তা অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন। কোন ক্যাপচা টাইপিং ওয়েবসাইট সম্পর্কে নেতিবাচক বা ইতিবাচক কিছু বলার থাকলে বলে যাবেন যার ফলে বাকিরা উপকৃত হবে।

ধন্যবাদ।

আর দেখুন: 

14 thoughts on “অনলাইনে ক্যাপচা এন্ট্রি করে আয় করুন”

      1. Ridoy, ভাই পোস্টটি সম্পূর্ণ ভাল করে পড়ুন। বিস্তারিত পোস্টের ভিতরে দেওয়া রয়েছে।

    1. Md Rakibul Islam Rakib, বিস্তারিত পোস্টের ভেতরে দেওয়া হয়েছে। তাই ভালো করে সম্পূর্ণ পোস্টটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

  1. রাকিব হাসান

    ভাল লাগেছে কিন্তু অনলাইন দিয়ে টাকা কামিয়ে দেখাইছে এমন লোক খুব কম।

    1. প্রায় ৫,০০০০০ সক্রিয় ফ্রিল্যান্সাররা নিয়মিতভাবে কাজ করছেন, দেশে ৬৫০,০০০ নিবন্ধিত ফ্রিল্যান্সারের মধ্যে; তাদের মধ্যে তারা বার্ষিক ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার জোগাচ্ছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশের আইসিটি বিভাগ। অনলাইন দিয়ে টাকা কামিয়ে দেখাইছে এমন লোক খুব কম বলেন কিভাবে?

  2. Md. Jamil Akhtar Iqbal

    Very glad to read your advice about Captcha writting and has given website ,many thanks.
    If you have any accounting work please provide me ,very grateful to you.
    thanks
    Jamil

    1. Md. Jamil Akhtar Iqbal, আমাদের কাছে কোনো “ক্যাপচা এন্ট্রির” কাজ নেই। কমেন্ট করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap