ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়?

ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়: ইউটিউব জিনিসটা সম্পর্কে আমরা সকলেই কম বেশি জানি। আমরা যেমন আমাদের নিত্য সমস্যার সমাধানের জন্য ইউটিউব ব্যবহার করছি তেমনি অনেকেই আমাদের সমস্যার সমাধানের জন্য খুলছে নতুন ইউটিউব চ্যানেল।

এভাবেই নানা সমস্যার সমাধান দিয়ে অনেকেই ইউটিউব থেকে আয় করছে ভালো পরিমাণ টাকা এবং ইউটিউবে তৈরি করছে নিজেদের স্মার্ট ক্যারিয়ার।

বর্তমান তরুন তরুণীদের মধ্যে ইউটিউবে ক্যারিয়ার গড়ার প্রবণতা অনেক বাড়ছে। কিন্তু এই ক্যারিয়ারে আসার আগে সবার একটি কমন প্রশ্ন থাকে ইউটিউব ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয় বা ইউটিউব কত ভিউ এ কত ডলার দেয়? আজকের এই পোস্টে আমরা এই বিষয় নিয়ে বিস্তারিত জানব , তাই পোস্টটি ভালোভাবে মন দিয়ে পড়ুন।

ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিওতে কত ভিউতে কত টাকা দেয়
ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিওতে কত ভিউতে কত টাকা দেয়?

ইউটিউব ভিউ কি?

ইউটিউব ভিউ বলতে ইউটিউব এর ভিডিও দেখা কে বুঝায়। যদি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের একটি ভিডিও কেউ একবার দেখে তাহলে সেই ইউটিউব ভিডিওতে একটি ভিউ যোগ হবে। এবার আসা যাক আসল বিষয়ে “ইউটিউবে প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়”

ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়?

ইউটিউব চ্যানেল খোলার আগে বা ভিডিও তৈরির আগে অনেকেরই এই প্রশ্নটি থাকে ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউস এ কত টাকা দেয়? না হয় কত ভিউতে ইউটিউব থেকে আয় শুরু হয়?

নতুনরা যখন এই প্রশ্ন করে তখন অনেকেই বলেন প্রথমেই ইনকামের কথা ভাবলে হবে না কিন্তু আমি ব্যক্তিগত ভাবে মনে করি ইউটিউব লাইনে আসার আগে সকলকেই এসব বিষয় জেনে রাখা দরকার। যদি কিছু না জেনেই এই লাইনে ডুকে পড়েন তাহলে হয়ত মাঝপথ থেকে হতাশ হয়ে ফিরে আসতে হবে।

ইউটিউব ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয় তা সঠিক ভাবে বলা অসম্ভব দেখা যায় কেউ কেউ Youtube এ ১০০০ ভিউতে ১ ডলারও আয় করতে পারেনা আবার কেউ কেউ ৭০০ ভিউতেই ৫-৬ ডলার আয় করতে পারেন। 

Youtube এ আসলে কোন Views জন্য টাকা দেয় না।এমনকি আমাদের ইউটিউব ও কোন প্রকার টাকা দেয় না। ইউটিউব হলো একটি ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যালফর্ম যেখানে হাজার হাজার ভিডিও আপলোড হয় এবং মানুষ দেখে।

এই ইউটিউব হলো গুগোলেরই একটি অঙ্গসংগঠন। ইউটিউব থেকে মানুষ আয় করে এডসেন্সের মাধ্যমে এডসেন্সও হলো গুগোলের একটি অঙ্গসংগঠনের যেটি বিজ্ঞাপন নিয়ে কাজ করে। আমরা আমাদের ইউটিউব ভিডিও গুলোতে গুগোল এডসেন্সের এড বসিয়ে আয় করি।

তাই আমরা কত ভিউতে কত আয় করব তা অনেকাংশে নির্ভর করবে গুগোল এডসেন্সের কিছু বিষয়ের উপর।যেই বিষয় গুলোকে কেন্দ্র করে এডসেন্স আমাদের টাকা দেয়।

আর দেখুন: 

গুগোল এডসেন্স 

আমরা প্রথমেই জেনে নিই কিভাবে এডসেন্স কাজ করে সেটি। গুগোল এডসেন্স বিভিন্ন এডভারটাইজার থেকে বিজ্ঞাপন নেয় এবং উক্ত বিজ্ঞাপন এডসেন্স ইউটিউব ভিডিওতে দেখায় তারপর বিজ্ঞাপনদাতা থেকে যে অর্থ আয় করে তার ৫০% এডসেন্স নিজে রাখে এবং বাকি ৫০% যার ভিডিওতে এডটি দেখানো হয়েছিল তাকে দেওয়া হয়। সুতরাং আমরা বুঝতেই পারছি এডসেন্স আমাদের তখনই টাকা দিবে যখন এডসেন্স নিজে আয় করতে পারবে।

এডসেন্স কিছু বিষয়ের উপে ভিত্তি করে নির্ধারণ করে কোন চ্যানেলের আয় কেমন হবে।চলুন জেনে আসি সেগুলো।

  • এড ভিউ
  • CPM
  • CPC
  • অডিয়েন্স লোকেশন 
  • Key-word 

এড ভিউ

আমরা যখন ইউটিউব ভিডিও দেখি তখন অনেকেই খেয়াল করি কিছু ভিডিওতে অনেক বেশি এড থাকে আবার কিছু ভিডিওতে এড কম থাকে আবার এমন ও কিছু ভিডিও থাকে যেগুলো এডসেন্স দ্বারা ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন করা সত্ত্বেও কোন এড শো করে না। এডসেন্স যেহেতু আপনাকে এড ভিউ করার জন্য টাকা দেয় যদি আপনার ভিডিওতে এডসই শো না হয় তাহলে টাকা কেমনে আসবে!

এক্ষেত্রে এটির জন্য আপনার কিছুই করার থাকে না। এই বিষয়টির জন্যই দেখা যায় অনেক ইউটিউবার ১০০০ ভিউতে ১০ ডলার আয় করে ফেলে আবার অনেকে ২ ডলার ও আয় করতে পারে না। এটির এখন পর্যন্ত জানা একমাত্র সলিউশন হচ্ছে ভিডিও বড় করা( কমপক্ষে ১০ মিনিট)।

যদি আপনার দর্শক বেশি সময় ধরে আপনার ভিডিও দেখে তাহলে আপনার ভিডিওতে এড শো করার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যায়। কিন্তু ভিডিও বড় করার জন্য এমন কোন কিছু করবেন না যাতে আপনার দর্শক বিরক্ত হয়৷ যদি এমনটা করেন তাহলে দর্শক ভিডিও অর্ধেক দেখেই চলে যাবে যেটির কারনে হয়ত আপনার পুরো চ্যানেলের সব ভিডিওতে এডস শো করা কমে যাবে।

এডস শো না হওয়ার কারন কি?

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ভিডিও ছোট হলে এডস শো করে না বা কম করে। ভিডিও যত বড় হবে এড তত বেশি শো করবে। কিন্তু অনেকেই মনে করেন ভিডিওতে ডিসলাইক বেশি হলেও এডস শো করে না বা কম করে।

দেখতে পারেন: ইউটিউব এসইও: YouTube ভিডিও #1 এ নিয়ে আসুন

CPM কি?

CPM এর পূর্ণরূপ হলো Cost per miles। তার মানে হলো বিজ্ঞাপনে ১০০০ ভিউ হলে কত টাকা খরচ হবে। একটু উদাহরণ দিয়ে বলি এডসেন্স এর সাথে এডভারটাইচার এর ডিল হলো যদি বিজ্ঞাপন ১০০০ জন দেখে তাহলে এডসেন্স ২ ডলার পাবে।

তারপর এডসেন্স আপনার ইউটিউব চ্যানেলে সেই বিজ্ঞাপন দেখিয়ে এডসেন্স ২ ডলার আয় করল তার থেকে ৫০% অর্থাৎ ১ ডলার আপনি পাবেন কারন এডসেন্স তার আয়ের ৫০% আপনাকে দিবেন।

এই CPM কোন সময় ২ ডলার আবার কোন সময় ০.২ ডলারও হয়। CPM এর পরিমান নির্দিষ্ট করা যায় কিছু বিষয়ের উপর ভিত্তি করে → 

  • আপনার ভিডিও দর্শক কতক্ষন ধরে দেখছে।
  • ভিডিওতে এডস আসলে তা কতক্ষন ধরে দেখছে।
  • এডস একটু দেখে “Skip” করে দিচ্ছে কিনা।
  • এডস কি শুধু দেখছে নাকি ক্লিকও করছে।
  • আপনার বেশিরভাগ  দর্শক কোন দেশ থেকে আপনার ভিডিও দেখছে।

এসবের উপর ভিত্তি করে CPM বাড়ে কমে। আর যার CPM যত বেশি হবে তার প্রতি ১০০০ ভিউতে আয় তত বেশি হবে। এজন্যই কার কত আয় হবে তা নির্দিষ্ট করে বলাটা সম্ভব নয় কারন কারো CPM বেশি কারো কম হয়। 

আর আপনার জন্য: 

CPC কি?

CPC এর পূর্ণরূপ হলো Cost per click। তার অর্থ হলো বিজ্ঞাপনে প্রতি ক্লিকে কত টাকা খরচ হবে। উদাহরণ দিয়ে বলতে গেলে এমন ব্যাপারটি যে এডভারটাইজার এডসেন্সকে তার বিজ্ঞাপনে প্রতি ক্লিকে করতে কত টাকা দিবে সেটি।

এটিও keyword, অডিয়েন্স লোকেশন ভেদে পরিবর্তন হয়। কেউ কেউ দেখা যায় ০.০১ ডলার পায় আবার কেউ কেউ ০.০৫ বা অনেক বড় বড় ইউটিউবাররা ১ ডলার পর্যন্ত টেয়ে থাকে। CPC’র ক্ষেত্রেও CPM এর ফেক্টর গুলো কাজ করে।

অডিয়েন্স লোকেশন :- 

অডিয়েন্স লোকেশন এডসেন্স থেকে ইনকামের মূল বিষয় গুলোর মধ্যে একটি। এমন কিছু কিছু রাষ্ট্র রয়েছে যেসব রাষ্ট্রে CPM এবং CPM অনেক হাই।

একটি উদাহরণ দিয়ে বুঝানো যাক একজন এডভারটাইজার এর সাথে গুগোল এডসেন্সের ডিল হলো যদি USA থেকে কেউ তার বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে তাহলে সে প্রতি ক্লিকে ২ ডলার দিবে আবার যদি USA এর বাইরে অন্য কোন দেশ হয় তাহলে ১ ডলার।

এখন আপনার অডিয়েন্স যদি বাংলাদেশি হয় তাহলে গুগোল আপনার চ্যানেল থেকে আয় করবে ১ ডলার এবং আপনাকে দেওয়া হবে ০.৫ ডলার। এভাবেই উন্নত ইউরোপের দেশ গুলোর ক্ষেত্রে CPC এবং CPM অনেক বেশি সেই তুলনায় বাংলাদেশ, ভারত বা পাকিস্তানের অনেক কম।

কিন্তু তাই বলে বাংলাদেশের ইউটিউবাররা যে টাকা আয় করে না তা কিন্তু নয়। পোস্টের শেষে বাংলাদেশের কিছু ইউটিউবারের মাসিক আয়ের ধারণা দিব আপনাদের। কোন দেশের CPC কত হবে তা গুগোল নিজেই নির্ধারণ করে দেয়। নিচে কয়েকটি হাই CPC দেশের নাম দেওয়া হলো।

  • আমেরিকা- ০.৬১
  • অস্ট্রেলিয়া – ০.৫৭
  • লন্ডন – ০.৪৮
  • ফিনল্যান্ড – ০.৪৫
  • কানাডা – ০.৪৫
  • নিউজিল্যান্ডে -০.৩৩
  • সুইডেন-০.৩১
  • আয়ারল্যান্ড -০.৩১
  • ডেনমার্ক -০.২৮
  • সিঙ্গাপুর -০.২৭
  • দক্ষিণ আফ্রিকা- ০.২৬

আর দেখুন: 

Keyword 

keyword মানে হলো শব্দ বা বাক্য। এটির গুরুত্ব একটা উদাহারন দিয়ে বুঝায় মনে করুন আমার একটি ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট নিয়ে কোর্স আছে আমি কোর্সটি বিক্রির জন্য গুগোলে বিজ্ঞাপন দিতে চাচ্ছি। সেক্ষেত্রে গুগোল আমাকে আমার টার্গেটেড অডিয়েন্স কারা যেটি জিজ্ঞাসা করবে তখন আমি বলব ওয়েব ডেভেলপমেন্ট নিয়ে যারা ভিডিও দেখে তারাই আমার টার্গেটেড অডিয়েন্স। তখন গুগল “ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ” এই বাক্য যুক্ত সকল ইউটিউব ভিডিওতে বিজ্ঞাপনটি দেখাবে।

প্রত্যেকটি key-word এর জন্য কত টাকা CPC এবং CPM দিতে হবে তা গুগোল নিজেই নির্ধারণ করে দেয়। আপনি যদি আপনার key-word এর CPC এবং CPM জানতে চান তাহলে গুগোল keyword planner এ দেখতে পারেন।

ইউটিউব কত সাবস্কাইব এ কত টাকা দেয়?

আপনার অনেকেই মনে করেন ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার টাকা দিয়ে থাকে। কিন্তু সত্য কথা হচ্ছে যে ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার উপরে কোন টাকা দেয় না। তারা ইউটিউবে এড দেখা ও ক্লিক করার মাধ্যমে ইউটিউব ইউটিউব চ্যানেল মালিককে টাকা দিয়ে থাকে।

কিছু কথা যা আপনার ইউটিউব পথচলাকে করবে আরো সহজ

এডসেন্সের ইনকামের অবস্থা দেখে অনেকেই হতাশ হয়েছেন তাদেরকে বলছি আপনি এডসেন্সের পাশাপাশি এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ও করতে পারেন।

১০০০ ভিউস এর জন্য যদি ৩ ডলার পান আর ১০০০ জন মানুষ যদি আপনার ভিডিও দেখে তাদের মধ্যে কমপক্ষে ১০ জন হলেও আপনার রেফার লিংকে গিয়ে পণ্য কিনবেন যদি আপনি সঠিক ভাবে উক্ত পণ্য সম্পর্কে বলতে পারেন। এভাবেই এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আপনি এডসেন্সের পাশাপাশি ভালো আয় করতে পারবেন।

এছাড়াও আরো অনেক উপায় রয়েছে ইউটিউব থেকে আয় করার তা জানার জন্য এই পোস্টটি পড়ুন।

অনেকরই হয়ত এখন এমন ধারণা তৈরি হয়েছে এডসেন্স থেকে আয় হয়ত কঠিন। চলুন বাংলাদেশের এমন কিছু ইউটিউব চ্যানেল এবং তাদের আয় দেখে আসি যারা এডসেন্স ব্যবহার করে লাখপতি হয়েছেন। 

  • মায়াজাল (বিনোদন) – $138k – 2.2M
  • পিনিকপাইন (শিক্ষা)  – $49k -$700k
  • Tawhid Afridi (বিনোদন) – $25k-$400k
  • ATC Android To To Company(টেক) – $11k-$185k
  • Sohag360 (টেক) – $6k – $107k
  • Cooking studio by Umme (রেসিপি)  – 14k-230k

এরা তো গেল বাংলাদেশের ইউটিউবারদের আয়ের হিসেব চলুন জেনে নিই বিশ্বের কিছু সেরা ইউটিউবারের আয়ের পরিমাণঃ-

  • Rayn Kaji(প্রোডাক্ট রিভিউ)- $26 million
  • Dude Perfect (গ্যামিং)-$20 million
  • Rhett and link(কমেডি)- $17.5 million
  • Jeffree Start ( লাইফস্টাইল এনবড ম্যাকআপ)- $17 million
  • Preston(গ্যামিং)- $14 million

আর দেখুন: 

কিছু প্রশ্ন এবং উত্তর

প্রশ্নঃ- ইউটিউব থেকে টাকা কিভাবে নিব?

উত্তরঃ- যদি আপনার ইউটিউব চ্যনেল এডসেন্সের সাথে যুক্ত থাকে এবং আপনার এডসেন্স একাউন্টে যদি ১০ ডলার থাকে তখন এডসেন্স থেকে আপনাকে ডাকযোগে একটি চিঠি পাঠাবে যেখানে কোড থাকবে ঐ কোডটি সাবমিট করে আপনার একাউন্ট ভেরিফাই করবেন।

তারপরে আপনি আপনার যেকোন বাংলাদেশি একাউন্ট যুক্ত করতে পারবেন কিন্তু যেই ব্যাংক এডসেন্স একাউন্টের সাথে যুক্ত করবেন সেটি অবশ্যই ইন্টারনেট ব্যাংক সাপোর্ট হতে হবে।তারপরে আপনি সরাসরি আপনার ব্যাংক একাউন্টে টাকা নিতে পারবেন।

প্রশ্নঃ- ইউটিউবের CPC/CPM কিভাবে বাড়াবো?

উত্তরঃ- CPC/CPM বাড়ানোর সবচেয়ে ভালো উপায় হলো ইংরেজিতে ভিডিও তৈরি করা। কারন English হলো একটি ইন্টারনেশনাল লেনগুয়েজ। তাই যদি আপনি ইংরেজিতে কন্টেন্ট তৈরি করেন তাহলে পুরো বিশ্বের সকল দেশের মানুষই আপনার কন্টেন্ট দেখবে।

এতে আপনার CPC/CPM বাড়বে আর যদি ইংরেজি কন্টেন্ট বানাতে না পারেন তাহলে একমাত্র সলিউশন হচ্ছে কোন বিষয়ে কন্টেন্ট তৈরি করবেন তা নির্বাচন করার আগে ভালো করে কি-ওয়ার্ড রিসার্চ করা। ভালো করে কি-ওয়ার্ড রিসার্চ করে বেশি CPC/CPM পাওয়া যায় এমন কোন বিষয় নির্বাচন করুন এবং ভিডিওতে সঠিক ভাবে আপনার কি-ওয়ার্ড বসান।

প্রশ্নঃ- ইউটিউব আয় কিভাবে বৃদ্ধি করবেন?

উত্তরঃ-আপনার ইউটিউব থেকে যদি আয় কম হয় তাহলে তার জন্য সবচেয়ে বড় দোষী হলো আপনার কন্টেন্ট। তাই ইউটিউব আয়কে বৃদ্ধি করতে হলে আপনার জন্য সবচেয়ে উত্তম পরামর্শ হলো আপনার কন্টেন্টের মান ভালো করুন আর ভিডিও সঠিক ভাবে এসইও করা।

আর যদি এডসেন্সের পাশাপাশি আরো কিছু আয় করতে চান তাহলে রয়েছে এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, ই-কমার্স ইত্যাদি। 

শেষ কথা,

ইউটিউব এমন একটি ক্যারিয়ার যেখানে যে যত ধৈর্যশীল সে তত সফল। আজকের এই সফল ইউটিউবাররাও একদিন ছিল বিগিনার। তারাও আপনার মতো এমন গুগোল ইউটিউব ঘেটে এসব তথ্য জেনেছে।

কে জানে হয়ত একদিন এমন কোন পোস্টে আপনার চ্যানেলের নাম লিখা হবে। সৎ থাকুন ধৈর্য রাখুন সততার পারিশ্রমিক একদিন পাবেন। আমাদের এই পোস্টে মূলত একটি অভারভিউ দেওয়া হয়েছে কোন উপায়ে ইনকামের পরিমাণ কেমন সেটি।

যদি সঠিক দক্ষতা থাকে তাহলে আপনি আমাদের বলার সংখ্যা থেকে বেশি টাকা আয় করতে পারবেন আবার যদি দক্ষতা না থাকে তাহলে হয়ত আমাদের বলা সংখ্যা গুলো আপনার কাছে আকাশ কুসুম কল্পনা। তাই নিজের দক্ষতার দিকে ফোকাস করতে করতে হবে। এতক্ষণ মনোযোগ দিয়ে “ইউটিউবে কত ভিউ তে কত টাকা দেয়” পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

Warning 

অনেক ইসলামি আলেমেদর মতে ইউটিউবে গুগল এডসেন্স থেকে আয় করা টাকা হারাম। তাই মুসলিম পাঠকরা এই বিষয়ে ভালোভাবে জেনে তবেই এটি ব্যবহার করবেন এবং এই পোস্টটি সম্পূর্ণ শিক্ষামূলক একটি পোস্ট কাউকে এডসেন্স ব্যবহার করতে উৎসাহিত বা অনুৎসাহিত করা হয় নি এই পোস্টে।

3 thoughts on “ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়?”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap