অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা আয় করুন

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করুন: আমরা সবাই চায় অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে। যদি আমরা আমাদের শখের কাজ করেই অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে পারি তাহলেতো কথাই নেই!

হ্যাঁ আজকের এই পোস্টটি তাদের জন্য যারা ছবি তুলতে পছন্দ করেন এবং যারা তাদের তোলা ছবি বিক্রি করে আয় করতে চায়। এই পোস্টটি পড়ে আপনি জানতে পারবেন ছবি তুলে আয় করার ব্যাপারে সকল খুটিনাটি বিষয়। তাহলে মনে যোগ দিয়ে পড়তে থাকুন সম্পূর্ণ পোস্টটি। 

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা আয় করুন
অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা আয় করুন

বর্তমানে তরুণদের মধ্যে ফটোগ্রাফির প্রতি একটি অন্য রকম আগ্রহ তৈরি হয়েছে। সবাই চায় সুন্দর সুন্দর ছবি তুলতে এবং সেগুলো নানা সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করতে৷ কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করার জন্য তারা কোন টাকা পায় না।

কিন্তু কালের বিবর্তনে এমন একটি জায়গায় এসে আমরা পৌঁছে গিয়েছি যেখানে একজন মানুষ তার শখের বসে তোলা ছবিও অনলাইনে বিক্রি করে তার একটি আয়ের উৎস তৈরি করতে পারবে। আর সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো ছবি বিক্রি করে টাকা আয় করতে একটি মানুষকে অনেক বেশি দক্ষ থাকতে হয়না।

ভালো মানের একটি ক্যামেরা এবং টুকিটাকি কিছু এডিটিং স্কিল থাকলেই হয়ে যাবে।বর্তমানের মোবাইল ফোন গুলোতেই অনেক ভালো মানের ক্যামেরা থাকে কেউ চাইলে তার হাতে থাকা সেই মোবাইল দিয়েই ফটোগ্রাফি নানা আর্কষণীয় বিষয়কে কিংবা নানা প্রকৃতিক বিষয়কে আপনার ক্যামেরায় ধারণ করতে পারেন। আগেও বলেছি এডিটিং বিষয়ে আপনাকে একটু ধারণা রাখতে হবে। 

অবশ্যই পড়বেন: 

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয়

আপনি যদি আপনার তোলা কোন ছবি অনলাইনে বিক্রি করতে চান তাহলে তার জন্য আপনাকে কোন ক্রেতা বা বায়ার খুজতে হবে না। অনলাইনে ছবি বিক্রি করার জন্য নানা ইমেজ শেয়ারিং বা স্টক ইমেজ সাইট আছে। যেগুতে আপনি আপনার ছবি বিক্রি করার জন্য আপলোড দিতে পারবেন কিন্তু তার জন্য আপনার অনেক ভালো মানের, হাই রেজুলেশনের ছবি থাকতে হবে।

আপনি যদি এসব ওয়েবসাইটে কাজ করতে চান তাহলে প্রথমে আপনাকে কয়েকটি ফ্রি ওয়েবসাইটে একাউন্ট খুলে আপনার তোলা ছবি আপলোড করতে হবে। তারপর তারা আপনার ছবির কোয়ালিটি, রেজুলেশন ইত্যাদি নানা বিষয় যাচাই বাচাই করে আপনার প্রোফাইলকে ঐ ওয়েবসাইটে অনুমোদন দিবে।

আপনার প্রোফাইল অনুমোদন পাওয়ার পর আপনি সেখানে আপনার তোলা ছবি আপলোড করতে পারবেন। আপনি ছবি আপলোড করার সাথেই সাথেই সবাই আপনার ছবি দেখতে পারবে না৷ কারন তারা প্রথমে আপনার আপলোড করা প্রতিটি ছবিকে যাচাই করবে তারপরে ছবি গুলো আপলোড হবে এবং সকলে আপনার ছবি দেখতে পারবে।

যদি করো আপনার ছবি পছন্দ হয় সে ছবি কিনে নিবে এবং ঐ ছবি ব্যবহার করার সমস্ত রাইট পেয়ে যাবে। আপনার ছবি প্রতিবার বিক্রির জন্য আপনি কিছু টাকা কমিশন পাবেন। এভাবেই মূলত অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করা যায়। 

কোন ধরনের ছবি নিয়ে কাজ করবেন?

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে ইনকাম করতে হলে আপনাকে কিছু বিশেষ ছবির ক্যাটাগরি নিয়ে কাজ করতে হবে। যেসব ক্যাটাগরির ডিমান্ড অনেক বেশি মার্কেটে ঐসব ক্যাটাগরি নিয়ে কাজ করতে হবে।

নিচে কয়েকটি ক্যাটাগরি শেয়ার করলাম ওখানের প্রত্যেকটি ক্যাটাগরি নিয়ে কাজ করার প্রয়োজন নেয়। সেখান থেকে যেকোন ক্যাটাগরি নিয়ে কাজ করলে আসা করি সাফল্য পাবেন।

আর্ট-চিত্রাঙ্কন 

আমরা বিভিন্ন মিউজিয়াম কিংবা প্রদর্শনীতে গেলে নানা ধরনের হাতে আঁকা ছবি দেখতে পাই। এসব ছবি দেখতে যতটা সুন্দর ততটা আর্কষণীয়। আপনি এসব মিউজিয়াম কিংবা প্রদর্শনীতে গিয়ে হাতে আঁকা ছবি গুলোর ফটোগ্রাফি করতে পারেন। 

ফ্যাশন 

বর্তমানে অনলাইন এবং অফলাইন মার্কেটে ফ্যাশন ক্যাটাগরির প্রচুর চাহিদা রয়েছে। আপনি যদি এই ক্যাটাগরিতে দক্ষ হয়ে থাকেন তাহলে বিভিন্ন কোম্পানির ফ্যাশন ডিজাইন ফটোগ্রাফার হিসেবে কাজ করে টাকা নিতে পারেন। আবার বিভিন্ন নামি দামি অভিনেতাদের ফটোগ্রাফি করে অনলাইনে সাবমিট করতে পারেন।

ট্রাভেল

আপনি যদি একজন ভ্রমণ প্রিয় হয়ে থাকেন তাহলে এই ক্যাটাগরিটি হয়ত আপনার জন্য বেস্ট হবে। বিভিন্ন জায়গায় ভ্রমণ করার সময় সেখানকার নানা সুন্দর দৃশ্য ক্যামেরায় ধারণ করে সেগুলো অনলাইনে বিক্রি করতে পারেন। যদি আপনি খুব সুন্দর ভাবে আপনার ছবিতে নানা বিষয়বস্তু উপস্থাপন করতে পারেন তাহলে আপনি এই ক্যাটাগরিতে ভালো করতে পারবেন।

ব্যবসা

বিভিন্ন বড় বড় প্রতিষ্ঠান তাদের নিজস্ব ম্যাগাজিন বের করে যেখানে তাদের নানা মুহূর্তের ছবি এবং নান্ সাফল্যের কথা উল্লেখ থাকে। এসব ম্যাগাজিন তৈরিতে তাদের নানা মুহূর্তের চিত্র ধারনের জন্য তারা ফটোগ্রাফার ভাড়া করে।আপনি যদি এমন ফটোগ্রাফিতে এক্সপার্ট হয়ে থাকেন তাহলে আপনিও এভাবে কোন প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করতে পারেন।

ফুড

প্রত্যেকটি দেশের নিজস্ব কিছু ঐতিহ্যবাহী খাবার থাকে। আবার দেশের বিভিন্ন প্রান্তে অর্থাৎ জেলায় জেলায়ও নানা ঐতিহ্যবাহী খাবার পাওয়া যায়।যেমন বাংলাদেশের গ্রামগুলোয় গিয়ে দেখবেন কত রকমের পিঠা। এমন ঐতিহ্যবাহী খাবার গুলোর নানা ধরনের ছবি তুলে সেগুলো অনলাইনে বিক্রি করতে পারেন। এ ধরনের খাবারের ছবির চাহিদা অনেক তার কারণ হলো প্রত্যেক জাতির এসব খাবার তাদের ঐতিহ্যকে সবার সামনে তুলে ধরে।

ভালোবাসা

 আপনার কি মনে আছে রানা প্লাজা ধসে পড়ার পরে সেই নারী ও পুরুষের আলিঙ্গনের ছবিটি? কত মানুষকে আবেগপ্রবণ করেছিল ছবিটি! আপনি যদি এমন সব মুহূর্তের ছবি তুলতে পারেন যেগুলো মানুষের আবেগ, ভালোবাসার অনুভূতি ফুটিয়ে তুলতে পারেন তাহলে ঐ ছবি অনলাইনে বিক্রি করতে পারবেন। 

লাইফস্টাইল বা কালচার 

পৃথিবীতে অনেক জাতি রয়েছে। তাদের প্রত্যেকের রয়েছে আলাদা কালচার এবং লাইফস্টাইল। আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা এমন অন্য জাতিদের কালচার এবং লাইফ স্টাইল জানতে পছন্দ করি, এই সম্পর্কিত ছবি সংগ্রহ করতে পছন্দ করি। আপনি যদি বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করে থাকেন তাহলে এমন বিভিন্ন জাতির লাইফস্টাইল বা কালচার নিয়ে ছবি তুলে অনলাইনে বিক্রি করতে পারেন। 

প্রকৃতি 

ফটোগ্রাফি ইন্ডাস্ট্রিতে বহুল জনপ্রিয় একটি ক্যাটাগরি হলো প্রকৃতি। পৃথিবীতে প্রত্যেক মানুষেরই প্রকৃতির সৌন্দর্যের প্রতি একটা অন্য রকম আকর্ষণ কাজ করে। এবং এসব প্রাকৃতিক ছবি অনলাইনে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়। আর আমাদের দেশ নদীমাতৃক এবং সবুজের দেশ। আপনি আপনার আশেপাশে নানা প্রাকৃতিক বিষয় বস্তুকে ছবি তুলে তা অনলাইনে বিক্রি করতে পারেন। 

এবস্ট্রাক্ট

কোন বিষয়কে খুব কাছ থেকে ছবি তুলে তা মধ্যকার সূক্ষ বিষয় বস্তুর ছবি তোলা হলো এবস্ট্রাক্ট ফটোগ্রাফি। এসব ছবির চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। এসব ছবি তুলতে ভালো মানের ক্যামেরা এবং দক্ষতা দরকার হয়। 

বিনোদন 

বিনোদন বর্তমান পৃথিবীর আরেকটি জনপ্রিয় বিষয়। এমন মানুষ পাওয়া খুবই কঠিন যারা বিনোদন পছন্দ করে না। এসব বিনোদন মূলক ছবি অনলাইনে ভালো বিক্রি হয়। আপনি এসব বিনোদন মূলক ছবি নিয়ে ফটোগ্রাফি করতে পারেন।

আর দেখতে পারেন: 

অনলাইন থেকে ছবি করা কিনে? 

আপনাকে এতক্ষণ অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা ইনকাম করা নিয়ে এত কিছু বললাম এখন হয়ত আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে গুগোলে সার্চ দিলেই তো কত ভালো ভালো ছবি পাওয়া যায় তাহলে মানুষ কেন টাকা খরচ করে আমার থেকে ছবি কিনতে যাবে। আসুন জেনে নিই আপনার উত্তর। 

অনেকে বড় বড় উন্নত মানের কোম্পানি আছে যাদের বিভিন্ন কারনে নানা ছবির দরকার হয়। আর আমরা গুগোলে যেসব ছবি দেখতে পায় সেগুলো ব্যবসায়িক কাজে ব্যবহার করার অনুমতি নেই। তাই ঐ সব বড় বড় কোম্পানি তাদের কাজের জন্য ভালো ভালো মার্কেটপ্লেস থেকে ছবি কিনে নেয়। 

আবার উন্নত দেশ গুলোর কপিরাইট আইন খুবই স্ট্রিক৷ তাই তারা আমাদের মতো সহজে যেকোন ছবি ব্যবহার করতে পারে না। কারন ব্যবহৃত ছবির প্রকৃত মালিক যদি এর বিরুদ্ধে মালমা করে তাহলে অনেক টাকা জরিমানা হতে পারে।এসব কারনে উন্নত দেশ গুলোর সকলেই তাদের ব্যবহারের জন্য ছবি কিনে নেয়।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে কত টাকা আয় করা যায়? 

এখন হয়ত আপনাদের মনে প্রশ্ন আসছে এভাব৷ আপনি অনলাইনে ছবি বিক্রি করে কত টাকা আয় করতে পারবেন। 

আসলে ছবি বিক্রি করে আপনি কমিশন বেসড ইনকাম করতে পারবেন। অর্থাৎ আপনার ছবি বিক্রির ৫০-৭০% টাকা ওয়েবসাইট রেখে দিবে বাকি গুলো আপনি পাবেন। এটি ক্ষেত্র বিশেষে ভিন্নও হতে পারে। সাধারণত প্রায় ওয়েবসাইটই ফটোগ্রাফার দের প্রতি সেলের জন্য ৩০-৭০% কমিশন দেয়।

কিন্তু একজন ফটোগ্রাফার যদি তার ছবি শুধু একটি ওয়েবসাইটে বিক্রি করে তাহলে কমিশনের পরিমাণ বাড়ে কিন্তু যদি কয়েকটি ওয়েবসাইটে বিক্রি করে একই ছবি তাহলে কমিশন কম দেওয়া হয়। কিন্তু কমিশন কম দেওয়া হলেও যদি আপনি অনেক বেশি ছবি আপলোড করতে পারেন তাহলে অনেক ভালো টাকা আয় করা সম্ভব। 

অনলাইনে ছবি তুলে আয় করার একটি মজার ব্যপার হলো আপনি একটি ছবি যদি একবার আপলোড করেন তাহলে প্রতিবার বিক্রির জন্য আপনাকে কমিশন দেওয়া হবে। অর্থাৎ যদি একটি ছবি ১০০ বার বিক্রি হয় এবং প্রতি বারের জন্য ২ ডলার কমিশন দেয় তাহলে ১০০ বারের জন্য ২ ডলার করে ২০০ ডলার কমিশন পাবেন।

আর আপনি যদি এভাবে ৫০০/১০০০ টি ছবি আপলোড করতে পারেন তাহলে একটা বার ভাবুন তো প্রতি ছবি একবার সেল হলেও আপনি ভালো ইনকাম করতে পারবেন।

আর ফটোগ্রাফি তো মানুষ শখের বসে করে আপনার শখের বসে তোলা ছবি গুলো আপলোড করে যদি এত টাকা আয় করা যায় তাহলে মন্দ কি! আর এসব ছবি থেকে আপনি সারাজীবন ইনকাম করতে পারবেন যতক্ষণ আপনার ছবিটি ওয়েবসাইটে থাকবে।

কোথায় ছবি বিক্রি করব?

আপনি এখন হয়ত ভাবছেন এত ছবি বিক্রি ছবি বিক্রি করছি ছবি বিক্রি করবেন কোথায়! চলুন আপনাদের পরিচিত করিয়ে দেয় বিশ্বের সেরা ৫ টি ছবি বিক্রির ওয়েবসাইটের সাথে।

Shutterstock.com

ছবি বিক্রি করে আয় 1

১৫ বছর ধরে অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আসছে shutterstock এবং এখন পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফটোগ্রাফি মার্কেটপ্লেস এটি। প্রতি মাসে প্রায় ৮৫ মিলিয়ন মানুষ ভিজিট করে এই ওয়েবসাইটে। ২০০ মিলিয়নের মতো ছবি, মিউজিক এবং ভিডিও ফুটেজ রয়েছে তাদের। তাদের অনলাইনে রয়েছে মিলিয়ন মিলিয়ন কাস্টমার। এখন পর্যন্ত তারা ছবি বিক্রি করে প্রায় ৫০০ মিলিয়ন ডলার আয় করে নিয়েছে তারা।

আপনি যদি খুব ভালো ছবি তুলতে পারেন তাহলে এই ওয়েবসাইটে আপনার তোলা ছবি আপলোড করে মাস শেষে ভালো টাকা আয় করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইটটি ফটোগ্রাফারদের প্রতি ছবি বিক্রির জন্য ২০-৩০% কমিশন দিয়ে থাকে।

Fotolia.com

ছবি বিক্রি করে আয় 2

আমরা সবাই জনপ্রিয় Adobe কোম্পানিকে কম বেশি চিনি। Fotolia এডোবির একটি ওয়েবসাইট। যদিও এই ওয়েবসাইটি মার্কেটে এসেছে ২০১৯ সালে কিন্তু অবিশ্বাস্য ভাবে এটি খুব অল্প সময়ে অধিক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। প্রতিমাসে এই ওয়েবসাইটে ৪৫ মিলিয়ন ভিজিটর আসে। 

এই ওয়েবসাইটে কাজ করার সুবিধা হলো এখানে প্রতিযোগিতা কম এখনো। যদি আপনার ছবি মোটামুটি ভালো হয় তাহলে সহজে এপ্রুভ পেয়ে যাবেন। এই ওয়েবসাইটের সব ছবিই ভালো দাম পাওয়া যায়। এডোবির ওয়েবসাইট হওয়ায় ধারণা করা যায় অতি শীঘ্রই এটি জনপ্রিয়তার দিক থেকে shutteestock-কে ছাড়িয়ে যাবে। আপনি আপনার ছবি বিক্রি করে এখানে ভালো আয় করতে পারবেন।

GettyImages.com

ছবি বিক্রি করে আয় 3

এই ওয়েবসাইটে সাধারণত নেচার এবং ইমোশন টাইপের ছবির চাহিদা অনেক বেশি। এবং এই ওয়েবসাইটের ছবির দাম অনেক বেশি থাকে। প্রায় ৫০ মিলিয়নের মতো তাদের মাসিক ভিজিটর আছে। আপনি যদি এই ওয়েবসাইটে একাউন্ট এপ্রুভ করিয়ে ছবি বিক্রি করতে পারেন তাহলে অনেক ভালো পরিমাণ টাকা আয় করতে পারবেন। প্রতি ছবির জন্য ফটোগ্রাফারকে ২০% কমিশন দিয়ে থাকে এই ওয়েবসাইট। কিন্তু কমিশনের পার্সেন্টেজ কম হলেও ছবির দাম বেশি হওয়ায় আপনার ইনকাম বেশি হব।

iStockPhoto.com

ছবি বিক্রি করে আয় 4

এটি আরেকটি জনপ্রিয় স্টক ইমেজ শেয়ারিং মার্কেটপ্লেস। এটি মূলত গেটি ইমেজেরই ওয়েবসাইট অর্থাৎ গেটি ইমেজ দ্বারাই এটি পরিচালিত হয়। এই ওয়েবসাইটের সুবিধা হলো গেটি ইমেজের তুলনায় এখানে প্রোফাইল এপ্রুভ করা সহজ। প্রথমে এরা আপনাকে শুধু ৩ টি ইমেজ সেল করার সুযোগ দিবে। যদি আপনার ছবির কোয়ালিটি ভালো হয় তাহলে পরবর্তীতে আনলিমিটেড ছবি বিক্রি বিক্রি করার সুযোগ দিবে। সাধারণ এটি ফটোগ্রাফারদের প্রতি ছবি সেলের জন্য ২০-৪৫% কমিশন দেয়। 

Dreamstime.com

ছবি বিক্রি করে আয় 5

ফটোগ্রাফারদের আরেকটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হলো এটি। প্রতি মাসে প্রায় ২০ মিলিয়নেরও বেশি মানুষের এই সাইট ভিজিট করে। ড্রিমসাইট বলে তাদের প্রতি মাসে প্রায় ১ মিলিয়নের মতো ছবি বিক্রি হয়। তাদের বেশিরভাগ বায়ার ইউরোপ এবং আমেরিকা থেকে। প্রতি ছবি বিক্রির জন্য ফটোগ্রাফারদের ৩০-৪৫% কমিশন দেয় এই ওযেবসাইটটি। এখানে প্রোফাইল এপ্রুভ সহজেই হয়।

আর আপনার জন্য: 

কিভাবে মার্কেটপ্লেসে প্রোফাইল এপ্রুভ করাবেন?

এতক্ষণ ধরে জানলেন কিভাবে ছবি বিক্রি করে আয় করবেন, কেমন ছবি তুলবেন, কোথায় বিক্রি করবেন। এখন হয়ত আপনি ভাবছেন এখন ছবি তোলে বিক্রি করা শুরু করে দিবেন।

আসলে ব্যাপারটা যতটুকু সহজ মনে হচ্ছে এতটা সহজ নয়। অনলাইনে ভিডিও দেখে আয়, ডাটা এন্ট্রি করে আয় করার মতো কাজ এটি না৷ এটি একটি লং-টার্ম ইনকাম সোর্স হতে পারে আপনার জন্য। হাজার হাজার ডলার আয়ের সম্ভাবনা আছে এই কাজে।

আমরা উপরে যেসব ওয়েবসাইট শেয়ার করেছি সেখানে কাজ করতে হলে প্রথমেই আপনাকে ফ্রি একাউন্ট খুলে ঐ ওয়েবসাইটে একাউন্ট এপ্রুভ করাতে হবে। যদি আপনার ছবির গুণাগত মানএবং ছবির রেজুলেশন ভালো থাকে তাহলে আসা করা যায় আপনার প্রোফাইল এপ্রুভ হবে। প্রোফাইল এপ্রুভ হওয়ার পর আপনাকে ছবি আপলোড করতে হবে বিক্রির জন্য।

ছবি আপলোড করার পর প্রতিটা ছবি আবার রিভিউতে যাবে যদি সব ঠিকঠাক থাকে তাহলে আপলোড হবে এবং ঐ ছবি বিক্রি করে আয় করতর পারবেন।

যদি ছবির কোয়ালিটি ভালো না থাকে এবং ছবিতে কোন কপিরাইট ইস্যু থাকে তাহলে ছবি এপ্রুভ হবেনা। আপনি যদি একজন ভালো ফটোগ্রাফার হোন তাহলে আপনার ছবি এপ্রুভ করাতে তেমন জটিলতায় পড়তে হবে না।

যদি প্রথমবার প্রোফাইল এপ্রুভ না হয় তাহলে কয়েকদিন পরে আরো কিছু ভালো ছবি দিয়ে আবার এপ্রুভের জন্য আবেদন করলে অবশ্যই আপনার প্রোফাইল এপ্রুভ হবে। আর প্রোফাইল এপ্রুভ করানোর জন্য আপনার তোলা বেস্ট ছবি গুলোই দিবেন। 

শেষ কথা

ছবি বিক্রি করে আয় করাটা বর্তমানে একটি স্মার্ট প্রোফেশন হয়ে দাড়িয়েছে। কারন আমাদের সকলেরই মোবাইল আছে এবং মোবাইলে ভালো মানের ক্যামেরাও আছে তাই যে কেউ সহজে মোবাইল ফটোগ্রাফি করতে পারে।

ছবি বিক্রি করা জন্য DSLE ক্যামেরা দিয়েই ছবি তুলতে হবে তা কিন্তু না আপনি সহজে মোবাইল ফটোগ্রাফি করে আয় করতে পারবেন আপনার তোলা ছবি বিক্রির মাধ্যমে।

ধন্যবাদ আমাদের এই পোস্টটি এতক্ষণ মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্য।

6 thoughts on “অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা আয় করুন”

    1. আমাদের ওয়েবসাইটে অনলাইনে ইনকাম সম্পর্কিত পোস্টগুলি দেখুন। এবং নির্বাচন করুন কোন কাজটি শিখে আপনি অনলাইনে ইনকাম করতে চান।

    1. আমরা যে ওয়েবসাইটের লিংকগুলি আমাদের ওয়েব পেজে দিয়েছি এই লিংকগুলিতে গিয়ে চেষ্টা করুন।

    2. Md Monir Uddin

      সাটারস্টকে একাউন্ট করা একটু কষ্টকর। করার সাথে সাথে একাউন্ট ডিজেবল করে দেয় বাংলাদেশে থেকে। আরও গেটিং ইমেজের ও সেম অবস্থায় আছে। বর্তমানে অনেক ফটোগ্রাফার রয়েছে ভালো কোয়ালিটির তাই নতুনদের সুযোগ দিতে কমে চাই। নতুন অবস্থায় আপনি ফ্রি স্টক ফটো সাইটে কাজ করুণ লাইক, পিক্সবে অথবা অনন্যা সাইটে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Scroll to Top
Copy link
Powered by Social Snap